দৈনিক চোখের আলো

সাটুরিয়ায় বিভিন্ন বাজারে অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ ভাবে মজুদকৃত তেল উদ্ধার ও জরিমানা।

 


মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় লেপের নিচ থেকে তেল উদ্ধার ও চার প্রতিষ্ঠানকে ৭৮ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন সাটুরিয়া উপজেলা প্রশাসন ও জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। উদ্ধারকৃত তেল তাৎক্ষণিকভাবে উপস্থিত ভোক্তাদের মাঝে বিক্রয় করা হয়েছে। 

আজ বুধবার সকালে সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আরা ও মানিকগঞ্জ জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল উপজেলার বিভিন্ন বাজারে অভিযান পরিচালনা করেন।

অভিযানে তেলের মূল্যে কারসাজির অপরাধে দড়গ্রাম বাজারে তিনটি প্রতিষ্ঠান থেকে ৬০০ লিটার বোতলজাত তেল উদ্ধার করা হয়। 

অনিক স্টোরে মালিক বাসুদেব বসাককে (৩৫০ লিটার মজুত) ৫০ হাজার টাকা, অসীম স্টোরকে (১০০ লিটার মজুত) ১৫ হাজার টাকা এবং সুধীর স্টোরকে (১৫০ লিটার মজুত) ১০ হাজার টাকা, সাটুরিয়া বাজারে বুদ্ধু সাহা স্টোরকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। 

মানিকগঞ্জ জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল বলেন, ‘ঈদের আগে মজুতকৃত বোতলজাত তেল দোকানে প্রদর্শন না করে অতিমুনাফার লোভে বিভিন্ন গুপ্ত স্থানে লুকিয়ে গায়ের মূল্য বেশি দামে তেল বিক্রি করা হচ্ছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে অনিক স্টোরে মালিক বাসুদেব বসাকের বাসায় গিয়ে খাটের নিচে, লেপ কাঁথার নিচ থেকে অবৈধ মজুতকৃত ৩৫০ লিটার বিভিন্ন ব্রান্ডের বোতলজাত তেল উদ্ধার করা হয়। সেই সঙ্গে আরও দুই প্রতিষ্ঠান থেকে ২৫০ লিটারসহ মোট ৬০০ লিটার তেল উদ্ধার করা হয় এবং উদ্ধারকৃত ৬০০ লিটার বোতলজাত তেল উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আরার তত্ত্বাবধানে তাৎক্ষণিকভাবে উপস্থিত ভোক্তাদের মধ্যে বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়।

 এ ছাড়াও দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল রাখতে কাঁচাবাজার ও আটা ময়দার বাজার মনিটরিং করা হয়। 

অভিযানে সহযোগিতা করেন সাটুরিয়া উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর নিলুফার ইয়াসমিন, ৩৮ ব্যাটালিয়ন আনসার মানিকগঞ্জ। 


Post a Comment

0 Comments